মাকে ছাড়া ভালো কাটছেনা রিয়াজের জন্মদিন

তাকে বলা হয় ঢাকাই ছবির ক্রান্তিলগ্নের ক্যাপ্টেন হিরো। সেই ডিপজল-মান্নার অশ্লীল যুগে যখন ডুবতে বসেছিলো চলচ্চিত্র শিল্পের মান তখন রিয়াজ হাল ধরেছিলেন একাই।

 

তিনিই মধ্যবিত্ত ও শিক্ষিত শ্রেণির দর্শকদের হলে ধরে রেখেছিলেন শাবনূর-পূর্ণিমার সাথে জুটি বেঁধে। উপহার দিয়েছিলেন ‘শ্বশুড়বাড়ি জিন্দাবাদ’, ‘দুই দুয়ারী’, ‘জামাই শ্বশুড়’, ‘প্রেমের তাজমহল’, ‘পাগল তোর জন্য’, ‘সুন্দরী বধূ’, ‘মনের মাঝে তুমি’, ‘দারুচিনি দ্বীপ’, ‘আকাশ ছোঁয়া ভালবাসা’, ‘হৃদয়ের কথা’, ‘মোল্লা বাড়ির বউ’ এর মতো ব্যবসা সফল এবং আলোচিত বহু চলচ্চিত্র।

Like actor Riaz’s fb fan page

আজ প্রিয় এই অভিনেতার জন্মদিন। তবে এবারের জন্মদিনে হার্টথ্রব নায়ক রিয়াজের মন খারাপ। কারণ গত সেপ্টেম্বরের ৩ তারিখ তার মা মৃত্যুবরণ করেন। এরপর থেকে প্রতি মুহূর্তে মাকে মিস করছেন রিয়াজ। আর আজকের জন্মদিনে বেশি করেই তার মায়ের কথা মনে পড়ছে।

 

বুধবার (২৬ অক্টোবর) সকালে এটিএন টোয়েন্টিফোর অনলাইন এর সঙ্গে তিনবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার প্রাপ্ত এই নায়ক বলেন, ‘মাকে ছাড়া এবারই প্রথমবার আমার জন্মদিন কাটছে। মাকে ছাড়া ভীষণ অসহায় লাগছে। আমার জীবনের হয়তো সবচেয়ে খারাপ জন্মদিন যাচ্ছে এবার। কারণ মাকে ছাড়া আমার জন্মদিন কখনই পালন করা হয়ে ওঠেনি।’

 

রিয়াজ আরো বলেন, ‘মায়ের কবর জিয়ারত করতে বিকেলের ফ্লাইটে যশোর যাবো। কারণ সেখানেই মাটিতে ঘুমিয়ে আছেন আমার মা। আল্লাহ যেন আমার মাকে বেহেস্ত নসীব করেন। সবার কাছে আমার এবং আমার মায়ের জন্য দোয়া চাই।’

 

এদিকে, রিয়াজের স্ত্রী তিনা এবং তার একমাত্র কন্যা আমিরাও বর্তমানে দেশে নেই। তারা এখন অস্ট্রেলিয়াতে আছেন। আগামী মাসেই দেশে ফিরবেন তারা- বললেন রিয়াজ।

 

রিয়াজের পুরো নাম রিয়াজ উদ্দিন আহমেদ। জন্ম ১৯৭২ সালের ২৬ অক্টোবর ফরিদপুর জেলা সদরের কমলাপুর মহল্লায় একটি সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে। বেড়ে উঠেছেন ফরিদপুর সিএনবি স্টাফ কুয়ার্টার্সে। বাবা মৃত জাইনুদ্দিন আহমেদ সিদ্দিক একজন সরকারী কর্মকর্তা ছিলেন ও মাতা আরজুমান আরা বেগম একজন সু-গৃহিণী। রিয়াজের বড় ছয় বোন, জিন্ন্যা আরা, সুলতানা জাহানারা সিদ্দিক, সুলতানা রওনক আরা, সুলতানা রওশন জামিল, সুলতানা সালমা শাহীন ও সুলতানা ফাতেমা শিরিন। পরিবারের কনিষ্ঠ সন্তান রিয়াজ আহমেদ ২০০৭ সালের ১৮ ডিসেম্বর ২০০৪-এর বিনোদন বিচিত্রার ফটো সুন্দরী প্রতিযোগিতায় শ্রেষ্ঠ সুন্দরী হিসেবে নির্বাচিত মডেল মুশফিকা তিনা’র সঙ্গে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন।

 

নন্দিত চিত্রনায়ক রিয়াজকে জাগো নিউজের পক্ষ থেকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা এবং ৪৫তম বছরে অভিনন্দন। আরো অনেকদিন তিনি বেঁচে থাকুন ঢাকাই ছবির প্রয়োজনে।

আমাকে সবাই অশ্লীল নায়িকা বলে, বিষয়টি ঠিক না : মুনমুন

বাংলা চলচ্চিত্রের অশ্লীল সময়ের নায়িকা হিসেবেই পরিচিত নায়িকা মুনমুন সম্প্রতি বলেছেন, আমাকে সবাই অশ্লীল নায়িকা বলে থাকলেও বিষয়টি ঠিক না।

 

মুনমুন বলেন, আমি ২০০৩ সালে চলচ্চিত্র থেকে বিদায় নিয়েছিলাম। তখন অশ্লীলতা বলে কিছু ছিল না। আমি চলচ্চিত্র থেকে বিদায় নেওয়ার পর মূলত শুরু হয় অশ্লীলতা। আমি সংসার জীবনের জন্য অনেক দিন অভিনয় থেকে বিরত ছিলাম।

 

দীর্ঘদিন পর আবারো নাগিন হয়ে ফিরছেন মুনমুন । ছবির নাম ‘দুই রাজকন্যা’। এরই মধ্যে এ ছবির প্রথম ধাপের কাজ শেষ হয়েছে।

 

১৯৯৬ সালে প্রয়াত গুণী নির্মাতা এহতেশামের ‘মৌমাছি’ ছবি দিয়ে চলচ্চিত্রে ক্যারিয়ার শুরু করে টানা ৮০টিরও বেশি ছবিতে কাজ করেছেন তিনি। এর মধ্যে অধিকাংশ ছবিই সুপারহিট হয়। নিজের অভিনীত অন্যান্য ছবির পাশাপাশি সাপ নিয়ে নির্মিত কিছু ছবিতে অভিনয় করে বেশ আলোচিত হয়েছিলেন এই অভিনেত্রী। ‘বিষে ভরা নাগিন’, ‘বিষাক্ত নাগিন’, ‘দুই নাগিন’ ছবিগুলোতে তাকে এমন চরিত্রে দেখেছেন দর্শক।

 

মুনমুন বলেন, “বিরতি কাটিয়ে তিনটি ছবিতে কাজ করছি। এর মধ্যে ‘দুই রাজকন্যা’ ছবিতে একজন নাগিনের চরিত্রে অভিনয় করছি, যে নাগিনটি রাজকন্যারা বিপদে পড়লেই উদ্ধার করবে এবং তাদের আশ্রয় দেবে। ভিন্ন কিছু চরিত্রে কাজ করার চেষ্টা করছি।”

 

এই ছবি ছাড়াও ড্যানি সিডাক এর ‘কাঁসার থালায় রুপালি চাঁদ’, দেলোয়ার জাহান ঝন্টুর ‘৫২ থেকে একাত্তর’ ছবিতে কাজ করেছেন মুনমুন। এ ছাড়া তাজু কামরুলের নতুন একটি ছবিতে খলনায়িকারূপে দেখা যাবে তাকে

 

উল্লেখ্য যে, মুনমুন অভিনীত সর্বশেষ মুক্তিপ্রাপ্ত ছবি ছিল ‘কুমারী মা‘। ২০১৪ সালে ছবিটি মুক্তি পায়।

ম‍াহিয়া মাহির বিয়ের খবর ফাঁস | স্বামী ব্যবসায়ী অপু

ম‍াহিয়া মাহির বিয়ের প্রসঙ্গে এবার সরাসরি সংবাদ এলো গণমাধ্যমে ! ঢাকাই চলচ্চিত্রের এই সময়ের শীর্ষ নায়িকা মাহিয়া মাহি কাউকে না জানিয়ে হঠাৎ বিয়ে করে নিয়েছেন। কিন্তু কাকে বিয়ে করেছেন এই নায়িকা? জানা যায়, পাত্র সিলেটের কদমতলী’র সন্তান মাহমুদ পারভেজ অপু। সিলেটের স্থানীয় সন্তান অপু পেশায় একজন ব্যবসায়ী।

 

চার বছর ধরেই নাকি তাদের মধ্যে পরিচয় এবং মন দেয়া নেয়া চলছে। অবশেষে উভয় পরিবারের আগ্রহে মাহি এবং অপুর বিয়ে সম্পন্ন হয়েছে। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় রাজধানীর উত্তরাতে মাহির নিজের বাসায় কাবিননামা সম্পন্ন হয়। এতে শুধু উভয় পরিবারের সদস্যরাই উপস্থিত ছিলেন। মিডিয়া বা চলচ্চিত্রের কাউকে এই অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানানো হয়নি।

 

জানা যায়, গত ১২ মে মাহিয়া মাহি ও অপু’র বাগদান সম্পন্ন হয়। আজ ২৪ মে রাতে রাজধানীর উত্তরায় একটি স্থানীয় রেস্টুরেন্টে মাহি তার স্বামী অপু’কে নিয়ে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হবেন এবং একসঙ্গে নৈশভোজও করবেন। আর সেখানেই সবার সাথে তার স্বামীকে পরিচয় করিয়ে দেবেন।

ম‍াহিয়া মাহির বিয়ের খবর ফাঁস

নিজের বিয়ে প্রসঙ্গে মাহিয়া মাহি বলেন, ‘আল্লাহর অশেষ রহমতে খুউব ভালো মনের একজন মানুষকে স্বামী হিসেবে পেয়েছি। অপু গ্রামের সহজ সরল সাধারণ মানুষ। এমন একজন মানুষই আমার জীবনে আমার পাশে চেয়েছিলাম। আল্লাহ আমার সেই ইচ্ছে পূরণ করেছেন। আমি চলচ্চিত্রকে ভালোবাসি, পাশাপাশি সংসার জীবনটাও নিজের মতো উপভোগ করতে চাই। তাই সবার কাছে দোয়া চাই যেন আমরা সুখে থাকতে পারি, ভালো থাকি।’

 

এদিকে মাহিয়া মাহি জানান আসছে ২৪ জুলাই সিলেটে ওয়ালিমা (বৌ-ভাত) সম্পন্ন হবে। তাহলে কী চলচ্চিত্রে অভিনয় করা ছেড়ে দিবেন আপনি? এমন প্রশ্নের জবাবে মাহিয়া মাহি বলেন, ‘চলচ্চিত্র আমার ভালোবাসা, ভালোলাগার জায়গা। যেহেতু বিয়ের পরা সিলেটেই থাকবো আমি, তাই বছরে দু’একটি চলচ্চিত্রে কাজ করবো। এর বেশি না। কারণ আমি আমার বর্তমান জীবনটাকে এখন প্রাধান্য দিতে চাচ্ছি।’

খুব শীঘ্রই বিয়ের পিড়িতে বসতে যাচ্ছেন ক্রিকেটার রুবেল এবং হ্যাপী । এমনটায় ইঙ্গিত দিয়েছেন এই দুই আলোচিত তারকা। হ্যাপি তার ফেসবুক স্টাটাসে জানিয়েছেন, ‘বিয়ে করতে যাচ্ছি, ইনশাল্লাহ।’ তবে পাত্র এখনো পাওয়া যায়নি। কবে নাগাদ হ্যাপি বিয়ে করছেন সেটাও নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তবে এটুকুই শুধু জানিয়েছেন, ‘আমি বিয়ে বসার নিয়ত করেছি, বাকিটা আল্লাহর হাতে। উনি চাইলে অবশ্যই পাত্র পাবো ইনশাল্লাহ’

 

অন্যদিকে হ্যাপির নিকট ধর্ষিত হওয়া সাবেক প্রেমিক ক্রিকেটার রুবেল হোসেনও বিয়ে করেছেন বলে খবর ফাঁস হয়েছে আজ। গত বছরের ফেব্রুয়ারী মাসে বাগেরহাটের মুনিগজ্ঞ এলাকার এক রড ব্যবসায়ী রফিকুল ইসলাম কচির বাসায় ইসরাত জাহান দোলাকে বিয়ে করেন রুবেল।

 

রুবেলের বিয়ের খবর গণমাধ্যমের আগেই হ্যাপি জেনে গেছেন বলে ধারণা করছে তার ঘণিষ্ঠরা। রুবেলের উপর জিদ মেটাতেই হ্যাপি এরকম স্ট্যাটাস দিয়েছে বলে মনে করছেন হ্যাপির বাবার বন্ধু মোবাসছেদ হোসেন খান। গত ৯ মার্চ হ্যাপি ফেসবুকে এই বিয়ের ঘোষণা দেন। যদিও বিয়ের ব্যাপারে হ্যাপির এই নিয়ত অবশ্য এবারই প্রথম নয়। গতবছরও খবর উঠেছিলো বিয়ে করছেন তিনি। ২১ এপ্রিল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে এক স্ট্যাটাসের মাধ্যমে বিয়ের খবর প্রকাশ করেছিলেন তিনি। স্ট্যাটাসে হ্যাপি লিখেছিলেন, ‘২৩ এপ্রিল আমার বিয়ে। প্রোগ্রাম ৭টা থেকে। গুলশান-১।’

 

তবে পরে তিনি গণমাধ্যমকে জানিয়েছিলেন, “বিষয়টি সত্য নয়, আমি মজা করে পোস্ট দিয়েছিলাম। আপনারা আবার ভাববেন না যে আমি বিয়ের জন্য ছেলে পাচ্ছিনা। এটা ভুল। আমার জন্য এখনো লম্বা লাইন ধরে ছেলেরা দাঁড়িয়ে আছে।”

 

প্রসঙ্গত, নাজনীন আক্তার হ্যাপি ক্রিকেটার রুবেল হোসেনের সঙ্গে সতিচ্ছেদ ও সম্পর্কচ্ছেদের পর মামলা করেছিলেন। সেই মামলা ধোপে টেকেনি। মাঝে আত্মহত্যার ঘোষণাও দিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু নিজেকে তিনি জাতীয় পার্টির এরশাদ প্রমাণ করে আর আত্মহত্যাটি করেননি। শেষমেষ মিডিয়াপাড়ায় জায়গা করতে না পেরে ধর্ম-কর্মে মনোনিবেশ করেন হ্যাপি।

 

এখন তিনি নিয়মিত ফেসবুকে হিজাব পরিহিত ছবি পোস্ট করছেন। আর ধর্মীয় স্ট্যাটাস দিচ্ছেন একের পর এক। নিজের নামও বদলে ফেলেছেন। তার নতুন নাম ‘আমাতুল্লাহ’। বর্তমানে একটি ক্বওমী মাদ্রাসায় পড়াশোনা করছেন তিনি। অনেকটা নিভৃতেই জীবন-যাপন করছেন। মোবাইলের আইসিতে সমস্যা থাকায় এখন আর ফোনেও পাওয়া যায়না তাকে।

ছবি আপলোড করে বিপাকে পড়লেন শান্তা রহমান

সম্প্রতি ফেসবুকে নিজের কিছু ছবি আপলোড করে বেশ বিপাকে পড়েছেন মডেল ও অভিনেত্রী শান্তা রহমান। তার ছবিগুলোকে অশালীন দাবী করে বিভিন্ন গ্রুপে আজেবাজে পোস্ট এবং মন্তব্য চালাচালি হচ্ছে, এমনটাই জানিয়েছেন তিনি।

 

শুধু তাই নয়, শান্তার ছবি দিয়ে বেশ কয়েকটা ফেক আইডিও খোলা হয়েছে বলে জানা গেছে। শান্তা বলেন, “আমার ছবিতে অশ্লীল কিছু নেই যে এগুলো দেখে আমাকে নিয়ে উত্তেজক কিছু ভাবতে হবে। বা এসব নিয়ে গ্রুপে গ্রুপে আলোচনা করতে হবে। আমি এর বিরুদ্ধে কঠোর হবো। আর ছাড় দিবোনা এসব নোংরামিকে।”

 

এসময় ফেসবুকে Shanta Rahaman নামে একটি আইডি ছাড়া অন্য কোনো আইডি চালান না বলেও জানিয়েছেন তিনি।

শান্তার সেই ছবিগুলো দেখে নিন এখান থেকে

শাকিবের নায়িকা হচ্ছেন সানি লিয়ন

এবার বসগিরি সিনেমায় শাকিব খানের নায়িকা কে হচ্ছেন, এই প্রশ্নের উত্তর নিয়ে অনেকদিন ধরেই সরগরম হয়ে ছিলো সিনেমাপাড়া। এবার জানা গেলো, সানি লিয়ন এর নাম। এতদিন পর্যন্ত পরীমনি, মাহিয়া মাহি কিংবা নুসরাত ইমরোজ তিশার কথাই বলা হচ্ছিলো। তবে কলাকুশলীদের পক্ষ থেকে এবার নিশ্চিত করা হলো, শাকিবের বিপরীতে এই সিনেমায় নায়িকা হবে বলিউডের আলোচিত অভিনেত্রী সাবেক পর্ণস্টার সানি লিয়ন।

 

সিনেমার নির্মাতা ও প্রযোজক দুজনই নায়িকার নাম গোপন রাখার জন্য যথেষ্ট কৌশল অবলম্বন করেছেন। তবুও বেশ কিছুদিন ধরেই মানুষের মুখে মুখে ঘুরছিলো সানির নাম। অবশেষে এব্যাপারে আনুষ্ঠানিক ঘোষণাটা দিয়েই দিলেন তারা। এ উপলক্ষে শনিবার রাতে রাজধানীর গুলশান ২ এর একটি ফাইভস্টার হোটেলে আয়োজন করা হয় বিশেষ সংবাদ সম্মেলনের। ‘বসগিরি’ সিনেমার সকল কলাকুশলী সেখানে উপস্থিত ছিলেন।

 

এ প্রসঙ্গে সানি লিওন এর ভাষ্য, “বাংলা সিনেমায় অভিনয়ের সুযোগ পাবো, এমনটাই তো আমি কখনোই ভাবিনি। বলিউডে অভিনয়ের পর মাদ্রাজি ও কলকাতার সিনেমায় অভিনয়ের অনেক প্রস্তাব পেয়েছি। কিন্তু বাংলাদেশি সিনেমায় অভিনয়ের কোনো ভাবনা আমার কখনোই ছিলো না।”

অশ্লীল পোস্টে ভর্তি নায়লা নাইমের ফেসবুক পেজ !

বর্তমান দেশীয় মিডিয়ার একজন জনপ্রিয় মডেল তারকা নাইলা নাইম। নিজের খোলামেলা ছবি প্রকাশের মাধ্যমে তিনি হুট করেই জনপ্রিয়তা পেতে বসেন। রাতারাতি হয়ে যান সেলিব্রেটি বা তারকা। আর এই তারকা খ্যাতির কারণেই তার রয়েছে ফেসবুকে একটি ভেরিফাইড ফ্যান পেজ। কিন্তু তার ফেসবুক ফ্যান পেজ ভিজিট করলে বোঝার উপায় নেই যে এটি কোন মডেল এর পেজ নাকি কোন বিব্রতকর অনলাইন নিউজ শেয়ারের পেজ। বিভিন্ আজেবাজে নোংরা, অশ্লীল ও বিকৃত রুচির নিউজ লিংকে ভর্তি নায়লা ‍নাইমের এই পেজ।

ভিডিওটি দেখলেই বুঝতে পারবেন

নায়লা নাইমের ফেসবুক পেজ থেকে নিয়মিত শেয়ার করা হচ্ছে কিছু অশ্লীল নিউজের লিংক। যা কোন ভেরিভাইড পেজ থেকে পাওয়াটা ফেসবুক ব্যবহারকারীদের জন্য খুবই বিব্রতকর। একের পর এক অভিযোগ আসছে, নায়লা নাইম বিভিন্ন ভূয়া অনলাইন নিউজ পোর্টালের মালিকদের কাছ থেকে এসব নিউজ শেয়ার করার জন্য অর্থ গ্রহণ করেন। টাকার বিনিময়ে নায়লা নাইম তার পেজ ভাড়া দেন। তার এই কাজের জন্য তিনি ফেসবুকে ব্যাপক সমলোচিত হচ্ছেন। যদিও একটি নির্দিষ্ট সময় পর সরিয়ে নেয়া হচ্ছে শেয়ার করা লিংকগুলো।

 

জানিয়ে রাখা ভালো, এই মডেল তারকা নায়লা নাইম পেশাগত মডেলিংয়ের পাশাপাশি একজন দন্ত চিকিৎসক। নায়লা নাইমের এধরণের নিচু মানসিকতার কাজের বিরুদ্ধে কঠোর আইনি ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য ফেসবুক ব্যবহারকারীরা সম্প্রতি একটি ইভেন্ট বানিয়ে প্রতিবাদ জানানো শুরু করেছে।

এক বিছানায় সালমান সাবিলা ! হচ্ছেটা কি এসব?

“কাউকে না জানিয়ে হঠাৎ করেই বিয়ের কাজটা সম্পন্ন করে ফেলেছিলেন সালমান মুক্তাদির ও সাবিলা নুর। তারপর যা হবার তাই হয়েছে। এক বিছানায় সালমান সাবিলা দুজনের ফটো ছড়িয়ে গেছে ফেসবুক টাইটারে”

 

হ্য‍াঁ ঠিক এরকম একটি গুজব নিয়ে গত কয়েকদিন যাবৎ ফেসবুকে হইহুল্লোড় শুরু হয়েছে। আসলে হচ্ছেটা কি এসব? আসুন জেনে নেয়া যাক।

 

আজ হঠাৎ করেই সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুকে ইউটিউব সালমানখ্যাত সালমান মুক্তাদির ও মডেল অভিনেত্রী সাবিলা নূরের কিছু ছবি ছড়িয়ে পড়ে। গুজব উঠেছে তাঁরা দুজন বিয়েটা সেরে ফেলেছেন। কিন্তু বিষয়টি খোঁজ নেওয়ার পর জানা গেল, না তাঁরা বিয়ে করেননি। অনলাইনে ছড়িয়ে পড়া ছবিগুলো একটি ফান ভিডিওর অংশ বিশেষ।

 

ওই ছবিগুলোতে দেখা যায়, সাবিলা আর সালমান একটি দৃশ্যে অভিনয় করছেন। সালমানের পরনে সাদা পাঞ্জাবী ক্রিম কালারের পায়জামা ও কালো জাঙ্গিয়া আর সাবিলা পরে আছেন খয়েরী রঙের একটি শাড়ি। এসব ছবি আবার সালমান নিজের ফেসবুক পেইজে আপ করে মন্তব্য করেন, ‘ওয়েলকাম টু দ্য ফ্যামিলি। থ্যাংকস আ লট শৌভিক আহমেদ অ্যান্ড তামিম মৃধা ফর দ্য গ্রেট সাপোর্ট।’ আর এতেই গুজবের ডালপালা ছড়িয়ে পড়ে বহুদূর। তবে দুই ঘণ্টার মধ্যেই সালমান ছবিসহ দেওয়া পোস্টটি সরিয়ে ফেলেন। রোববার দুপুরের পর সালমান ছবিগুলো পোস্ট করেছিলেন। নিজের পোস্টে সালমান যাদের ধন্যবাদ দিয়েছিলেন তাদের একজন তামিম মৃধা। তার সাথে কথা হয় এনটিভি অনলাইনের। তামিম জানান, ‘এসব ছবি আসলে গুজব।’

 

তামিম মৃধা নিশ্চিত করেন সালমান ও সাবিলা বিয়ে করেননি। তিনি বলেন, ‘তাদের বিয়ের কথাটিও গুজব মাত্র।’ ম্যাংগো স্কোয়াড ইউটিউব ভিডিও প্রোডাকশন হাউসের পক্ষ থেকে তৈরি হওয়া সদ্য এই ফান ভিডিওটি শিগগিরই সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমগুলোতে ছাড়া হবে বলে জানান তিনি। এই ভিডিওটি নির্মাণে যুক্ত ছিলেন তামিম মৃধা। তিনি ম্যাংগো স্কোয়াডের এক্সিকিউটিভ।